আপডেট

x

১২বছরের কিশোরীকে ২৫বছর দেখিয়ে সৌদি প্রেরণ, শিকার হলো ধর্ষণের

শুক্রবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২০ | ৩:৪০ অপরাহ্ণ | 115 বার

১২বছরের কিশোরীকে ২৫বছর দেখিয়ে সৌদি প্রেরণ, শিকার হলো ধর্ষণের

সৌদি আরবের রিয়াদে গৃহকর্মী ভিসায় গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছে ১২ বছরের এক বাংলাদেশী কিশোরী।

জানা যায়, পাসপোর্টে ২৫ বছর বয়স দেখিয়ে ১২ বছর বয়সী ওই কিশোরীকে সৌদি আরব গৃহকর্মী ভিসায় পাঠানো হয়।

যৌননিপীড়নের শিকার ওই কিশোরী মারাত্মক আহত অবস্থায় রাজধানী রিয়াদের প্বার্শবর্তী শহর মাজমা তোমাইর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

চিকিৎসাধীন ওই কিশোরী জানায়, ২/৩ দিন ধরে আমাকে একটি রুমে আটকে রেখে ঘুমের ঔষধ খাইয়ে নির্যাতন করেছে কয়েকজন বাংলাদেশি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৯ সালে ৪ অক্টোবর সাদ্দাম নামে দালালের মাধ্যমে জেনিয়া ওভারসিজ লাইসেন্স নাম্বার ১২২০ রিক্রুটিংয়ে জীবিকার তাগিদে সৌদিতে যায় ওই কিশোরী।

তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগরের পত্তন উপজেলার মাশাওড়া গ্রামে।

নির্যাতনের শিকার হবার অভিযোগ নিয়ে সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশি নারীদের ফেরত আসার ঘটনা ক্রমাগত বাড়ছে। সৌদি ফেরত নারী শ্রমিকদের কাছ থেকে নির্যাতনের এরকম বেশ কিছু কাহিনী প্রকাশিত হয়েছে ইতিমধ্যে। তবে মাত্র ১২ বছর বয়সী কিশোরীকে নির্যাতনের ঘটনা হয়তো এটাই প্রথম।

এদিকে সৌদিআরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ জানান, এই জঘন্য কাজের সাথে যারা যারা জড়িত তাদের সবাইকে বিচারের আওতায় আনা হবে। তিনি আরো জানান, বাংলাদেশ দূতাবাস বিপাশার চিকিৎসা সহ সর্বাত্মক সহায়তা প্রদান করবে।

ওই কিশোরীর বাবাকে ভিসার দালাল সাদ্দাম হোসেন জানিয়েছে, আপনার মেয়ে রোড এক্সিডেন্ট করে হাসপাতালে আছেন। ঐ হাসপাতালে কর্মরত এক বাংলাদেশীর মোবাইল দিয়ে ইমুতে তার বাবার কথা হলে ঘটনার সত্যতা জানতে পারে।

ওই কিশোরীর পিতার দাবী হসপিটালের ক্লিনার ভিসা দিবে বলেছে বলে আমি রাজী হয়েছি আমার ছোট্ট মেয়েকে বিদেশ পাঠাতে। আমি রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস ও সরকারের কাছে এই ঘটনার সুস্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিচার দাবী করছি।

 

রাফি//-

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com