আপডেট

x

সাপের কামড়ে অসুস্থ, প্রাণ ফিরে পেয়ে চিকিৎসকদের শুভেচ্ছা জানালেন বৃদ্ধ

মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২ | ১০:০০ অপরাহ্ণ | 63 বার

সাপের কামড়ে অসুস্থ, প্রাণ ফিরে পেয়ে চিকিৎসকদের শুভেচ্ছা জানালেন বৃদ্ধ

৬০ বছরের বৃদ্ধ জুরু মিয়া নিজ জমিতে গিয়ে বিষাক্ত সাপের কামড়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরিবারের সদস্যরা তার শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন দেখে তাকে উদ্ধার করে ২৫০শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা দুইদিন চিকিৎসা দিয়ে তাকে সুস্থ করে তুলেন। নতুন জীবন ফিরে পেয়ে মঙ্গলবার (২ আগষ্ট) দুপুরে হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের কৃতজ্ঞতা স্বরূপ ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বৃদ্ধ জুরু মিয়া।


খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সীমান্তবর্তী উপজেলা বিজয়নগরের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের দুলালপুরের নুরু মিয়ার ছেলে মো. জুরু মিয়া (৬০)। গত রোববার বেলা ১১টার দিকে নিজের জমি দেখতে যান। এসময় পেছন দিক দিয়ে পায়ে কামড় দেন বিষাক্ত কিছু। ক্ষতস্থান দিয়ে রক্ত ঝরতে থাকে। এই অবস্থায় তিনি বাড়িতে চলে যান। এই ঘটনার প্রায় ৫ ঘন্টা পর নিজ বাড়িতে ধীরে ধীরে অসুস্থ হয়ে পড়েন জুরু মিয়া। তখন পরিবারের সদস্যরা ধারণা করে তাকে বিষাক্ত সাপ কামড় দিয়েছে। এই অবস্থায় তার পায়ের উপরে রশি দিয়ে বেধে দ্রুত জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালে যখন পৌঁছে তখন প্রায় বিকেল ৫টা। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে প্রাথমিক ঔষধ দিয়ে দ্রুত ভর্তি দেন। কিন্তু তারপরও সাপের বিষক্রিয়ায় জুরু মিয়ার শারীরিক অবস্থা অবনতি দেখে চিকিৎসকরা৷ পরে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক সহ কয়েকজন চিকিৎসক পরামর্শ করে সাপের কামড়ের এন্টিভেনাম ইঞ্জেকশন প্রয়োগ করে জুরু মিয়াকে পর্যবেক্ষণে রাখে। দুইদিন চিকিৎসা শেষে তিনি সুস্থ হয়ে উঠেন। সুস্থতার পর আজ মঙ্গলবার দুপুরে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের কক্ষে চিকিৎসক ও নার্সদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান জুরু মিয়া। এসময় চিকিৎসকরাও জুরু মিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

webnewsdesign.com

জুরু মিয়া বলেন, প্রথমে আমি কিছু বুঝে উঠতে পারিনি। শরীর যখন দূর্বল হয়ে উঠে, তখন বুঝতে পারি বিষাক্ত কিছু আমাকে কামড় দিয়েছে। আমি জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের প্রতি কৃতজ্ঞত। তাদের চিকিৎসা সেবায় আমি নতুন জীবন ফিরে পেয়েছি।

২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. ওয়াহীদুজ্জামান বলেন, সাপের কামড়ে আক্রান্ত হয়ে এই ব্যক্তি আমাদের হাস্পাতালে চিকিৎসা নিতে আসে। অবশেষে আমাদের চিকিৎসক ও নার্সদের আন্তরিক চিকিৎসায় তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। প্রত্যাশা করছি, ভবিষ্যতেও যদিও কোন রোগী সাপের কামড়ে অসুস্থ হয়ে আসলে আমরা এন্টিভেনামের মাধ্যমে কাঙ্খিত সেবা দিতে পারবো।

 


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com