সাংবাদিক সেজে ভোট কেন্দ্রে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, ম্যাজিস্ট্রেটের হাতে ধরা

শনিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ |

সাংবাদিক সেজে ভোট কেন্দ্রে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, ম্যাজিস্ট্রেটের হাতে ধরা
Spread the love

চলছিল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় কেল্লা শহীদ মাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন। নির্বাচন চলাকালীন এম এ আমানুল্লাহ(৪০) নামে এক ভূয়া সাংবাদিক আটক করেছে আখাউড়া উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সকালে খড়মপুর কল্লা শহীদ মাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন থেকে তাকে আটক করা হয়। পরে ৭ ঘন্টা আটকে রেখে মুচলেকা দিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আটকৃত ব্যক্তি উপজেলার মনিয়ন্দ ইউনিয়নের উত্তরপাড়ার মৃত মাতাব মিয়ার ছেলে এম এ আমানুল্লাহ। তিনি সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত রয়েছে।

webnewsdesign.com

নির্বাচনে দায়িত্বরত কর্মকার্তার সূত্রে জানা যায়, সকাল ৮ টা থেকে খড়মপুর মাজার পরিচালনা কমিটির নির্বাচন শুরু হয়। ভোট গ্রহন শুর হওয়ার পর থেকে ওই ব্যাক্তি সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ভোটকেন্দ্রের আশেপাশে ভিডিও ও ছবি তুলছিলেন। নির্বাচনে দায়িত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তার আচরণে সন্দেহ হলে তাকে সাংবাদিক পরিচয় পত্র দেখাতে বলেন। তখন আমানুল্লাহ কোন পরিচয় পত্র দেখাতে না পারায় তাকে আটক করা হয়। পরে খোজ নিয়ে দেখা যায় সে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য পরিদর্শক হিসেবে সরকারি চাকরিতে রয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচনে দায়িত্বে থাকা আখাউড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রশান্ত চক্রবর্তী বলেন, আমানুল্লাহ নামের ওই ব্যাক্তি সকালে ভোট কেন্দ্রের আশপাশের সন্দেহ জনক ভাবে ঘোরাঘুরি করে ভিডিও এবং ছবি তুলছিলেন। তখন তাকে সন্দেহ হলে তার পরিচয় জানতে চাইলে সে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দেন।আমরা তার পরিচয় পত্র দেখাতে বলি।কিন্তু সে তা দেখাতে না পারায় তাকে আটক করি। আমরা তার উর্ধ্বতন কতৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করেছি। তারা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবেন।

এ বিষয়ে তার কর্মস্থল শাল্লা উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ নূরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সে সরকারি কর্মচারি, সে সাংবাদিকতা করতে পারে না। এমনিতেও সে নিয়মিত অফিস করে না।আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবো।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com