আপডেট

x

সরাইলে মানুষের সাথে চিকিৎসা চলে গরু-ছাগলেরও,হাতুড়ে ডাক্তারকে জরিমানা (ভিডিও)

মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২১ | ৭:১১ অপরাহ্ণ | 111 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে শুধুমাত্র ফার্মেসি পরিচালনার অনুমোদন নিয়ে একটি বাড়িতে চলছিল ক্লিনিকের কার্যক্রম। সেখানে এক হাতুড়ে চিকিৎসক একাধারে নাক, কান ও গলা বিশেষজ্ঞ, ডেন্টিস্ট, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, গ্যাস্ট্রোলজী বিশেষজ্ঞ, কিডনি বিশেষজ্ঞ, গাইনী বিশেষজ্ঞের চিকিৎসা, এমনকি গরু ছাগলের চিকিৎসাও দিয়ে যাচ্ছিলেন।


এই খবরে সোমবার উপজেলার শাহবাজপুরে ১নং গেইট এলাকায় ডে-নাইট নামের এক ফার্মসীতে অভিযান পরিচালনা করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সদস্যরা। অভিযান শেষে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে হাতুড়ে চিকিৎসক ফেরদৌস মিয়া’কে ৬০হাজার টাকা জরিমানা করেন।

webnewsdesign.com

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত ফার্মেসিতে ঔষধের ব্যবসার আড়ালে ক্লিনিক খোলে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন পল্লী চিকিৎসক ফেরদৌস নামের এক ব্যক্তি।এই খবরে সলোমন বেলা ১১টার দিকে ওই ফার্মেসিতে অভিযান পরিচালনা করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারি পরিচালক মো. মেহেদী হাসান। তাকে সহায়তা করেন সরাইলের স্বাস্থ্য পরিদর্শক গৌরপদ শাখা ও পুলিশের উপপরিদর্শক (এস আই) মোতালেব হোসেন।

অভিযানকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে ক্লিনিকের কোন অনুমোদিত কাগজ দেখাতে পারেননি ফার্মেসির মালিক ফেরদৌস মিয়া। এছাড়াও ওই ফার্মেসীতে পাওয়া গেছে মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ ও স্যালাইন।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযুক্ত ফেরদৌস মিয়াকে
ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ এর ৪৪ ধারায় ৩০হাজার এবং ৫১ ধারায় আরও ৩০ হাজার টাকা সহ মোট ৬০হাজার টাকা জরিমানা করেন।

সোমবার রাতে সহকারি পরিচালক মো. মেহেদী হাসান জানান, ‘খবর পেয়ে আমরা অভিযান চালিয়েছি। জরিমানা প্রদানের পাশাপাশি ওই ফার্মেসির মালিক এই ধরনের অপরাধ আর করবেন না মর্মে অঙ্গীকার করেছেন। অনুমোদন না নিয়ে অবৈধ ভাবে ক্লিনিকের নামে প্রতারণা চলতে পারে না। জনস্বার্থে আমাদের এ ধরণের অভিযান নিয়মিত চলবে’।


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com