সরাইলে ভেকু মেশিনে কাবিখা’র কাজ উদ্বোধন করলো এমপি পুত্র, বঞ্চিত শ্রমিকরা

মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০ | ৯:৪৭ অপরাহ্ণ | 611 বার

সরাইলে ভেকু মেশিনে কাবিখা’র কাজ উদ্বোধন করলো এমপি পুত্র, বঞ্চিত শ্রমিকরা
কাবিখা'র কাজ উদ্বোধন করছে ভেকু মেশিনে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে স্থানীয় বিএনপি দলীয় সাংসদ উকিল আব্দুস সাত্তার ভূইয়ার কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচী (কাবিখা) প্রকল্পের বিশেষ বরাদ্দকৃত সড়কের কাজ ভেকু মেশিনে উদ্বোধন করেছে তার ছেলে মইনুল হাসান তুষার। এসময় তার সাথে থেকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর। ভেকু মেশিন দিয়ে কাজটি করার ফলে কর্ম থেকে বঞ্চিত হলো সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ।

আর এই অনৈতিক কাজের মূলহোতা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম ও এই প্রকল্পের সমন্বয়কারি ইউপি সচিব আব্দুল কুদ্দুস। অথচ উদ্বোধন হওয়া এই কাজ কার দায়িত্বে হচ্ছে চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব ও স্থানীয় ইউপি সদস্য কেউ জানেন না বলে জানান।


সারাবিশ্বের ন্যায় বাংলাদেশেও যখন করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সচেতনতায় ও সংক্রমণ রোধে প্রায় অঘোষিত লকডাউন। এই ভাইরাসের সচেতনতায় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করছেন, সেই সুযোগে এই কাজটি তড়িঘড়ি করে শেষ করার পায়তারা করছেন স্থানীয় চেয়ারম্যান ও ইউপি সচিব।

শুধু তা ই নয়, এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমপি পুত্র মইনুল হাসান তুষার দলবল নিয়ে শোডাউন করে হাজির হন। এর ফলে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে তিনি স্থানীয়দের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে ফেলে দিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের বরইচারা -ভূঈশ্বর সড়কের ৯হাজার ফুট মেরামত ও প্রশস্তকরণ কাজের স্থানীয় এমপি উকিল আব্দুস সাত্তার ভূইয়ার কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচী (কাবিখা) প্রকল্পের বিশেষ বরাদ্দ দেন। কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচী (কাবিখা) হওয়ায় শ্রমিকের মাধ্যমে কাজটি সম্পন্ন করার কথা। কিন্তু সোমবার দুপুরে এই কাজটি ভেকু মেশিনের মাধ্যমে উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন করেন এমপির ছেলে মইনুল হাসান তুষার ও উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর। ভেকু দিয়ে কাজটি করায় বঞ্চিত হচ্ছে শ্রমিকরা। এ নিয়ে স্থানীয় খেটে খাওয়া মানুষরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

সড়ক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দল বেঁধে এমপি পুত্র তুষার

এবিষয়ে জানতে চাইলে পাকশিমুল ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘এই কাজের বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। আমি উদ্বোধনের সময় উপস্থিত ছিলাম। কত টুকু বরাদ্দ এসে বা কয়দিনের কাজ সব বলতে পারবেন স্থানীয় ইউপি সদস্য। আমি সব জেনে আপনাকে জানাচ্ছি কিছুক্ষণের মধ্যেই।’ পরবর্তীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে বিস্তারিত জানতে পূনরায় মুঠোফোনে কল দেওয়া হলে এই বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

ইউপি সদস্য এনামুল হক এই প্রতিবেদককে বলেন, আমি ইউপি সদস্য শুধুমাত্র। এই কাজের বিষয়ে কিছুই জানি না বিস্তারিত। শুধু জানি এই কাজটির জন্য এমপি সাহেব বরাদ্দ দিয়েছেন। কাজটি করা হচ্ছে ভেকু মেশিন দিয়ে স্থানীয়দের সুবিধার্থে। আর সবকিছু জানেন ইউপি চেয়ারম্যান সাহেব।

এই কাজের বিষয়ে সরাইল উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘কাজের বিনিময়ে খাদ্য (কাবিখা) প্রকল্পে ভেকু মেশিন দিয়ে কাজ করানোর নিয়ম নেই।’ সেখানে ভেকু মেশিনে কাজের বিষয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বিষয়টি কৌশলে এড়িয়ে যান।

কাজটি ভেকু মেশিনে উদ্বোধনের বিষয়ে জানতে মঙ্গলবার রাতে সংসদ সদস্য উকিল আব্দুস সাত্তার ভূইয়ার ছেলে মইনুল হাসান তুষারের মুঠোফোনে একাধিকবার কল দেওয়া হলে বন্ধ ও উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর কল রিসিভ করেননি।

কাবিখার মূল উদ্দেশ্য গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠির কর্মসংস্থানের মাধ্যমে আয়বৃদ্ধি, খাদ্য নিরাপত্তা, দারিদ্র বিমোচন এবং সে সঙ্গে এলাকার উন্নয়ন এ কর্মসূচি। উপজেলা কমিটি প্রাপ্ত বরাদ্দ অনুযায়ী পরিপত্র মোতাবেক ইউনিয়ন কমিটির মাধ্যমে প্রকল্প গ্রহন ও বাস্তবায়ন করা হয়। সে সাথে সংসদ সদস্যদের অনুকূলে বরাদ্দ প্রাপ্ত খাদ্যশস্য/টাকা সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় প্রকল্প গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করা হয়।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com