রোজাকে ত্রুটি মুক্ত করতে ‘সদকাতুল ফিতর’ আদায় করুণ

বুধবার, ২০ মে ২০২০ | ১২:৪৮ পূর্বাহ্ণ | 188 বার

রোজাকে ত্রুটি মুক্ত করতে ‘সদকাতুল ফিতর’ আদায় করুণ

আমরা মানুষ। মানুষ হিসেবে আমাদের ভুলত্রুটি থাকা ই স্বাভাবিক। আমরা যে সিয়াম বা রোজা পালন করি তা শত চেষ্টা করে ও একেবারে ত্রুটিমুক্ত করতে পারিনা। ত্রুটিপূর্ণ রোজাকে ত্রুটিমুক্ত করতে মাহে রমজানের শেষদিকে কিছু দান করতে হয়। এই দান কে ই ‘ফিতরা’ বলা হয়।


হজরত ইবনে আব্বাস (রা:) হতে বর্ণীত, তিনি বলেন, রাসুলে কারীম (সা:) সিয়ামকে বেহুদা ও অশ্লীল কথাবার্তা ও আচরণ থেকে পবিত্র করার উদ্দেশ্যে এবং মিসকিনদের খাদ্যের ব্যবস্থার জন্য ‘সদকাতুল ফিতর’ ফরজ করেছেন (আবু দাউদ)।

চার ইমামের মধ্যে তিনজন ইমাম মনে করেন ফিতরা ফরজ। কিন্তু আমাদের ইমাম, ইমামে আযম ইমাম আবু হানিফা (রহঃ) এর সিদ্ধান্ত হলো ‘ফিতরা’ ওয়াজিব।

হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর(রা:) হতে বর্ণীত। তিনি বলেন, রাসুল (সা:) স্বাধীন ও ক্রীতদাস, নর ও নারী ছোট ও বড় প্রত্যেক মুসলমানদের উপর ‘সদকাতুল ফিতর’ বাবদ এক সা’ খেজুর বা এক সা’ যব নির্ধারণ করেছেন। (মুসলিম, নাসায়ী, ইবনে মাযাহ)।
বুখারি শরিফে এক সা’ পনির বা এক সা’ কিসমিসের কথা ও উল্লেখ আছে।

সা’ হলো তৎকালীন আরবের প্রচলিত ওজনের মাপক। আমাদের দেশে এক সা’ হবে পূর্বের ওজনের তিন সের এগারো ছটাক।

রাসুল(সা:) সকলকে ঈদের নামাজের পূর্বে ই ফিতরা আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন।


হজরত ইবনে ওমর (রা:) হতে বর্ণীত। তিনি বলেছেন, রাসুল(সা:) আমাদের ‘সদকাতুল ফিতর’ লোকদের ঈদের নামাজের জন্য বের হওয়ার পূর্বে প্রদান করার নির্দেশ দিয়েছেন। (আবু দাউদ, বুখারি শরিফ)

ইমাম আবু হানিফা (রহঃ) এর মতে সাহেবে নিসাব যে ব্যক্তি সে ই ফিতরা আদায় করবে। নিজের পক্ষ হতে এবং তার উপর নির্ভরশীল ব্যক্তিদের উপর থেকে। যেমন- স্ত্রী, পুত্র, কন্যা, দাস-দাসী ইত্যাদি সকলের পক্ষ হতে।

সাহেবে নিসাব হলো যার নিকট সাড়ে সাত তোলা সোনা বা সাড়ে বায়ান্ন তোলা রুপা থাকে।

যাকাতের বেলায় সারা বছর এই মাল বা সমপরিমাণ মাল তার হাতে থাকা শর্ত, কিন্তু ফিতরার বেলায় সারা বছর নয়, বরং ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিকের সময় এই পরিমাণ মাল বা অর্থ তার অধীনে থাকলে ই তাকে ফিতরা দিতে হবে।

তাই আসুন, ফিতরা আদায়ের মাধ্যমে আমরা আমাদের রোজাকে ত্রুটিমুক্ত করার পাশাপাশি অসহায় মিসকিন সহ যারা ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত তাদের মুখে হাসি ফুটাতে ঈদুল ফিতরের আগে ই ফিতরা আদায়ে সচেষ্ট হই।

লেখক-
যুগ্ম সম্পাদক
ইসলামী ঐক্যজোট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান-এর অন্যান্য লেখা সমূহ পড়তে নিচে লিংকে ক্লিক করুন-   
★ আল্লাহতায়ালার ভালবাসা লাভের মাস মাহে রমজান

অন্যান্য এক এবাদত ইতেকাফ

★ হাদিসের আলোকে মাহে রমজানের ফজিলত

★ ধনী-গরীবের মাঝে সেতুবন্ধন সৃষ্টি করে ‘যাকাত’

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com