আপডেট

x

রাস্তায় পড়ে থাকা আহত প্রতিবন্ধীর আর্তনাদ দেখছিল সবাই, এগিয়ে আসেনি কেউ

সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০ | ৬:৫৬ অপরাহ্ণ | 184 বার

রাস্তায় পড়ে থাকা আহত প্রতিবন্ধীর আর্তনাদ দেখছিল সবাই, এগিয়ে আসেনি কেউ

সোমবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে নিজ বাসায় ফিরছিলেন ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক। পথিমধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের কুমারশীল মোড়ে গণগ্রন্থাগারে সামনে দেখতে পেলেন অনেক মানুষের ভীড়। এগিয়ে গেলেন তিনি। দেখতে পেলেন একজন ৬০/৬৫ বছরের বৃদ্ধ মাটিতে শুয়ে কাতরাচ্ছেন। বৃদ্ধের এই কাতরানো দলবেঁধে দেখছিল সবাই কিন্তু এগিয়ে গিয়ে সহায়তা করেনি। এই অবস্থা সেই বৃদ্ধের কাছে গিয়ে মাটি থেকে টেনে তুললেন ব্যবসায়ী আব্দুল মালেক। দেখতে পেলেন বৃদ্ধ লোকটির ডান হাতটি নেই, বাম হাতটি প্যারালাইজড। তার মাথায় ও মুখে আঘাত পেয়ে রক্ত ঝরছিল। মুখে বলতে পারছিলো না কথা।


এগিয়ে আশপাশের লোকজনকে জিজ্ঞাসা করলেন ব্যবসায়ী মালেক, লোকটি কিভাবে আহত হয়েছে? উপস্থিত সবাই জানায়, একটি দ্রুতগামী ব্যাটারি চালিত রিকশা থেকে বৃদ্ধ ছিটকে পড়ে আহত হয়েছে। রিকশাটি চলে গেছে। এই কথা জেনে বৃদ্ধ লোকটিকে নিজেই জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায় আব্দুল মালেক। সেখানে জরুরি বিভাগে চিকিৎসক জানান, এই ব্যক্তি যেহেতু আগে অসুস্থ ছিলেন এবং প্যারালাইজড তাই তার কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে হবে। আব্দুল মালেক বৃদ্ধ লোকটিকে পরীক্ষা ও এক্সরে করতে নিয়ে যান। তারপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে প্রয়োজনীয় ঔষধ কিনে দিয়ে আসেন।

webnewsdesign.com

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আহত বৃদ্ধের নাম আতাউর রহমান। বয়স ৬৫ বছর। তিনি প্যারালাইজড হয়ে যাওয়া মুখে স্পষ্ট কথা বলতে পারছেন না। শুধু বলতে পারছেন বাড়ি আখাউড়া।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের দি ঝুমুর হোটেল ও গ্র‍্যান্ড মালেক চাইনিজ রেস্টুরেন্টের মালিক আব্দুল মালেক জানান, একজন মানুষ আহত হয়ে রাস্তায় পড়ে রইলো অথচ সবাই দেখছে। কেউ সহযোগিতার জন্য এগিয়ে আসছেনা দেখে আমি নিজেই এগিয়ে গেছি। মানবিক দিক বিবেচনায় আমি বৃদ্ধ লোকটিকে সাহায্য করার চেষ্টা করেছি।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক এবিএম মোসা জানান, লোকটি আহত হওয়া তাকে কিছু পরীক্ষা দেওয়া হয়েছে। তবে বর্তমানে ভাল আছে। হাসপাতালে সে ভর্তি করা আছে।

রাফি/-


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com