জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

দিন

ঘন্টা

মিনিট

সেকেন্ড

যাদের জনগণ ভোট দেয়নি, তাদের সাথে কিসের সংলাপ-আইনমন্ত্রী

শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি ২০১৯ | ৯:২৯ পিএম | 338 বার

যাদের জনগণ ভোট দেয়নি, তাদের সাথে কিসের সংলাপ-আইনমন্ত্রী

বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্টের সংলাপ প্রসঙ্গে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপি বলেছেন, যাদেরকে জনগন প্রত্যাখ্যান করেছে তাদের সাথে আবার কিসের সংলাপ। জনগন তাদের ভোট দেয়নি। তারা ভেবেছে ঢাকা শহরের সোফায় বসে যা খুশি তা করবে, আর আপনারা তা মেনে নিবেন এটা তাদের অভ্যাস। এই অভ্যাসকে আর কোন সুযোগ দেওয়া হবেনা।

টানা দ্বিতীয়বার আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী করায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় আনিসুল হককে দেওয়া এক সংবর্ধনায় তিনি এই কথা বলেন।

শুক্রবার বিকেলে আখাউড়ায় উপজেলা মাঠে এই সংবর্ধনা সভার আয়োজন করে আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ।

এসময় আইনমন্ত্রী বলেন, সাজাপ্রাপ্ত তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা হবে। আমরা অন্যায় প্রশ্রয় দেয় না এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে সবসময় থাকব।
তিনি বলেন,জনগন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপর আস্থা রেখে আবার ক্ষমতায় বসিয়েছে। দেশে উন্নয়ন হচ্চে। উন্নয়নের সিড়ি পেরুতে পেরুতে উন্নয়নের শিখরে পৌছে যাবে একদিন।
যখন দেশ উন্নয়নের দিকে যাচ্ছে, তখনই জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছে।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, প্রবীণ আইনজীবি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল আহমেদ কখনোই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যার বিচার চাননি।

ড. কামাল হোসেনকে উদ্দেশ্য করে মন্ত্রী বলেন, একবারের জন্যও ওনি (কামাল হোসেন) বলেন নাই বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচার হওয়া উচিত। তিনি নিজেকে সংবিধান প্রণেতা ও বিরাট আইনজীবি পরিচয় দেন। কিন্তু যার বদৌলতে তিনি এতো পরিচিত হয়েছেন তার হত্যার বিচারের কথা তিনি একবারও বলেন না।

এতিমের টাকা চুরির জন্য খালেদাকে ৫ বছরের সাজা দিয়েছেন বিচারিক আদালত। তিনি আপিলে গিয়ে বায়ালিকে হাইবোর্ট দেখালেন। হাইকোর্ট কাকে ১০ বছরের সাজা দিয়েছেন। তার ছেলোকে ২২ জনকে হত্যার কারণে ১২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত।

সংবর্ধনায় আখাউড়ার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল তাকে একটি সোনার নৌকা দিয়ে বরণ করেন মন্ত্রী কে। এতে আইনমন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে তার আসন থেকে উঠে মাইকে ঘোষণা দেন সোনার নৌকাটি ফেরত দেওয়ার।

উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক আবুল কাসেম ভূঁইয়া, সেলিম ভূঁইয়া, পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল, মন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব রাশেদুল কাউসার ভূঁইয়া জীবন প্রমুখ।

মন্ত্রীকে দেওয়া হয় বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন থেকে দেওয়া হয় ফুলেল শুভেচ্ছা।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com