ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাশকতার অভিযোগে ২০শিবির নেতাকর্মী আটক (ভিডিও)

রবিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৯:২২ পিএম | 90 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাশকতার পরিকল্পনাকালে ২০শিবির নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার বেলা ১১টায় শহরের ভাদুঘর আলহেরা হাফিজিয়া মাদরাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ জিহাদি বই, সিডি, লিফলেট, চাঁদার রশিদ, কর্মপরিকল্পনার ডায়েরি ও পোস্টার উদ্ধার করা হয়। এসময় জব্দ করা হয় একটি কম্পিউটারের সিপিইউ।

আটকরা হলেন, জেলার কসবার আকসিনার গ্রামের মৃত আব্দুল গফুরের ছেলে মোঃ নুরুল আমিন (২৭), কসবার লফখা গ্রামের মোঃ জসিমউদ্দিনের ছেলে মোঃ জামিল উদ্দিন (২৫), আখাউড়া দেবগ্রামের মৃত আম মমিনের ছেলে মোঃ সালমান পারভেজ (২১), নাসিরনগরে গোয়ালনগর গ্রামের মৃত মিজানুর রহমানের ছেলে মোঃ নাইমুল ইসলাম (২৮), আখাউড়ার ধর্মনগরের ওসমানগনির ছেলে শেখ সাদিক (২১), বিজয়নগর ইসলামপুরের সিরাজুল ইসলামৈর ছেলে হাসান মাহমুদ (২১), নবীনগরের গোপালপুরের সাইদুর রহমানের ছেলে জহিরুল ইসলাম(২২), কসবার কৃষ্ণপুরের মোঃ আব্দুর রহমানের ছেলে আম্মার হোসাইন (২০), বিজয়নগরের আদমপুরের মোঃ আব্দুল ওয়াদুদের ছেলে মোঃ আবু সাইদ (১৯), আখউার জিকুটিয়া গ্রামের মোতাহার হোসেনের ছেলে হায়দর (১৮), বিজয়নগরের ইসমলামপুরের মোঃ শেখ ফরিদের ছেলে মোঃ কাওসার হোসেন (২১), কুমিল্লার দেবীদ্বারের ফাতেহাবাদ গ্রামের আবুল খায়ের মোঃ মহিবুল্লাহর ছেলে মোঃ হাবিবুর রহমান (২০), ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের দাতিয়ারা গ্রামের মৃত মোস্তাক খানের ছেলে মোঃ মেনহাজ (১৮), বাঞ্ছারামপুরের বিষ্ণরামপুরের মৃত তুজু মিয়ার ছেলে মোঃ শাহজালাল (২৭), বিজয়নগরের ইসলামপুরের মোঃ আলী আজগরের ছেলে মোঃ সাইফুল ইসলাম (২০), ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের সুলতানপুরের মোঃ আবুল খায়েরের ছেলে মাহমুদ (২০), বিজয়নগরের আমানপুরের মোঃ বাবুল মিয়ার ছেলে মোঃ জাকারিয়া (১৮), নবীনগরের লাউর ফতেপুর গ্রামের মৃত হুমায়ুন কবিরের ছেলে মোঃ আলামিন (২২), নবীনগরের মাঝিকারা গ্রামের মৃত আব্দুল হেকিমের ছেলে মোঃ জাহিদুল ইসলাম (২৪), নবীনগরের জল্লি গ্রামের মোঃ বাবুল মিয়ার ছেলে মোঃ সাহাবুদ্দিন (১৯)।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল কবির জানান, ১৬ডিসেম্বরে বিজয় দিবসকে কেন্দ্র করে তারা নাশকতার পরিকল্পনা করছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাদের আটক করা হয়েছে। এখন তল্লাশি চলছে, অভিযানে শেষে ধারণা করা হচ্ছে এই মাদরাসার সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে অন্তরালে জামায়াত-শিবির কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করতো। কারণ এখানে মাদরাসার শিক্ষা দেওয়ার মতো কোন কিছু চোখে পড়েনি। এ পর্যন্ত তাদের কাছ থেকে জিহাদি বই, সিডি, লিফলেট, চাঁদার রশিদ, কর্মপরিকল্পনার ডায়েরি, বিভিন্ন হিসাবের বই ও পোস্টার সহ বিভিন্ন সামগ্রী উদ্ধার করা হয়েছে।

আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে। মাদরাসা নামদারী এই অফিসটি তালাবদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com