আপডেট

x

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দু’দিনব্যাপী জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন

শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ | ৮:১৩ অপরাহ্ণ | 78 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় দু’দিনব্যাপী জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সদর উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ৪৩তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ উপলক্ষে দুইদিনব্যাপী বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন করা হয়েছে।


শনিবার বিকেলে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে দু’দিনব্যাপী বিজ্ঞান মেলার উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী।

webnewsdesign.com

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফিরোজুর রহমান ওলিও, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ এ.এস.এম শফিকুল্লাহ ও উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার জীবন ভট্টাচার্য।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লোকমান হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম ভূইয়া।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে র.আ.ম. উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেন, আমি আলিয়া মাদরাসা থেকে লেখাপড়া করেছি। আমি যখন পড়াশুনা করেছি তখন সেখানে বিজ্ঞান প্রবেশ করেনি। এখন আমাদের আশেপাশে যে মাদরাসাগুলো আছে, সেগুলোতেও বিজ্ঞান প্রবেশ করেনি। আদৌ প্রবেশ করতে পারবে কিনা তাও জানি না।

তিনি বলেন, বিজ্ঞান ছাড়া পৃথিবীর অগ্রগতি অসহায়। বিজ্ঞান ও প্রযক্তির অগ্রগতি মানে পৃথিবীর অগ্রগতি, মানব সমাজের অগ্রগতি।


তিনি আরো বলেন, প্রাচীনযুগে জ্বালানী কাঠের ঘষা-ঘষিতে যখন আগুন লাগে তখন থেকেই বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রা। আর সেই আগুন এখন আকাশে উড়ে রকেট। বিজ্ঞান ছাড়া পৃথিবী এক পাও এগুনো সম্ভব নয়। বিজ্ঞান ছাড়া যেমন ধ্বংস সম্ভব নয়, তেমনি জীবনযাত্রাকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়।

মোকতাদির চৌধুরী বলেন, বিজ্ঞান এটম বোমা তৈরি করে পৃথিবী ধ্বংস করতে পারে, তেমনি করোনাভাইরাসের প্রতিশেধক তৈরী করে মানুষের জীবন রক্ষা করে। অগ্রগতির সাথে ধর্মগ্রন্থের কোন সম্পর্ক নেই, আছে বিজ্ঞানের সম্পর্ক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে বিজ্ঞানের কল্যাণে। তিনি শিক্ষার্থীদেরকে বেশী বেশী করে বিজ্ঞান চর্চা করার আহবান জানান।

দু’দিনব্যাপী মেলায় সদর উপজেলার (বিজ্ঞান ক্লাব ৫টি, কলেজ ৫টি ও স্কুল ২২টি) সহ মোট ৩২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশ গ্রহন করে।

 

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com