ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্যাস সরবরাহ অফিসে হামলার উস্কানিদাতা গ্রেফতার

রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১ | ২:১২ পূর্বাহ্ণ | 170 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্যাস সরবরাহ অফিসে হামলার উস্কানিদাতা গ্রেফতার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের তান্ডবের পর জড়িত আসামীদের গ্রেফতার করতে জেলা পুলিশের অভিযান চলছে। এই তান্ডবে বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে হামলার মূল উস্কানিদাতা মো. শামীম (২৬)কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।


শনিবার (১০এপ্রিল) সন্ধ্যায় সদর উপজেলার বুধল ইউনিয়নের চান্দিরা গ্রাম থেকে উস্কানিদাতা গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) সদস্যরা। গ্রেফতারকৃত শামীম ওই এলাকার ফুল মিয়ার ছেলে। সে তিতাস গ্যাস ফিল্ডের কর্মরত আছেন।

webnewsdesign.com

জেলা গোয়েন্দা শাখা সূত্রে জানা যায়, গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলামের ডাকা হরতালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডব চালানো হয়। এসময় শামীম নামের ওই যুবক তার ফেসবুকে সদর উপজেলার ঘাটুরার বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে হামলার কথা বলে অনুরোধ জানায়। এরপর পরই বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির অফিসে ব্যাপক হামলা চালায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা। এসময় গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন অফিসটিতে হামলা করে প্রেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে। এতে ওই অফিসে থাকা ১০/১২ গাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ফলে ওইদিন রাত থেকে দুপুর পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের গ্যাস সংযোগ বন্ধ ছিল এবং সাধারণ মানুষ বাড়িঘরে রান্নার কাজ নিয়ে পড়ে দূর্ভোগে। এই ঘটনায় গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি মামলা দায়ের করে। শনিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে শামীমকে গ্রেফতার করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডবের ঘটনায় ৪৮টি মামলা শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত ৬২জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সদর মডেল থানায় ৪৩টি, আশুগঞ্জ থানায় ৩ টি ও সরাইল থানায় ২টি মামলা রুজু করা হয়েছে। এসব মামলায় এজাহারনামীয় ২৮৮ জনসহ অজ্ঞাতনামা ৩৫ হাজার লোককে আসামী করা হয়েছে। গত ২৬ মার্চের পর থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে ৬২ জন আসামীকে।

এদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডবের ঘটনায় আসামী ধরতে জেলা শহর সহ সদর উপজেলার সুহিলপুর ও বুধল ইউনিয়নে ব্যাপক অভিযান চালাচ্ছে সাদা পোষাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। গ্রামের অধিকাংশ পুরুষরা আতংকে রয়েছে ঘর ছাড়া।

এই বিষয়ে বুধল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হক বলেন, গ্রামে সাদা পোষাকে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। এই পর্যন্ত ৪জনকে বুধল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অনেক পুরুষ আতংকে বাড়িতে রাত্রী যাপন করছেন না।


এই বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান বলেন, পুলিশ আসামীদের ভিডিও ফুটেজ ও ছবি দেখে গ্রেফতার করছে। এছাড়াও যাদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আছে তাদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে। অপরাধী ছাড়া অন্যদের ভয় পাওয়ার কারণ নেই বলে আশ্বস্ত করেন পুলিশ সুপার আনিস।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com