বিগো লাইভ, টিকটক ও লাইকি অ্যাপস নিষিদ্ধ করতে রিট পিটিশন

বুধবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২০ | ৬:৩৩ অপরাহ্ণ |

বিগো লাইভ, টিকটক ও লাইকি অ্যাপস নিষিদ্ধ করতে রিট পিটিশন
Spread the love

হাইকোর্টে বিগো লাইভ, টিকটক, লাইকি অ্যাপস নিষিদ্ধ করার জন্য রিট পিটিশন দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার হাইকোর্ট বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় জনস্বার্থে এই রিট দায়ের করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জে আর খাঁন রবিন।

webnewsdesign.com

রিটে যুব সমাজের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার জন্য বিগো লাইভ, টিকটক, লাইকি নামক মোবাইলফোন অ্যাপস নিষিদ্ধ করতে সংশ্লিষ্টদের ব্যর্থতাকে কেন বে-আইনি ঘোষণা করা হবে না এবং একই সাথে কেন আ্যপসগুলো বন্ধের নির্দেশনা দেয়া হবে না- মর্মে রুল জারির আর্জি পেশ করা করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র সচিব, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি সচিব, তথ্য সচিব, বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান এবং পুলিশের আইজিকে রিটে রেসপনডেন্ট করা হয়েছে।

আইনজীবী জে. আর. খাঁন রবিন গণমাধ্যমকে বলেন, এইসব অ্যাপ ব্যবহার তরুণ প্রজন্মকে বিপথগামী করছে। নষ্ট হচ্ছে নৈতিকতা, সামাজিক মূল্যবোধ ও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ। তারা তরুণ বা কিশোর গ্যাংয়ে জড়িয়ে অপরাধমূলক কার্যক্রমে অংশ নিচ্ছে, হয়ে উঠছে সহিংস। তরুণ সমাজ এ আ্যপসের মাধ্যমে সস্তা জনপ্রিয়তা অর্জন করতে চায় এবং নিজেকে জনপ্রিয় ভাবতে শুরু করে।

তিনি বলেন, আ্যপগুলোর মাধ্যমে তরুণ ও যুবকদের টার্গেট করে লাইভে এসে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি ও কুরুচিপূর্ণ প্রস্তাব দিয়ে এবং যৌনতার ফাঁদে ফেলে কৌশলে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়। প্রতারক চক্রের ফাঁদে পড়ে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অনেক তরুণ।

রিটকারী এই আইনজীবী বলেন, বিব্রতকর, অনৈতিক ও অশ্লীল এসব ভিডিও পর্নোগ্রাফিকে উৎসাহিত করার ফলে ইতিমধ্যে ভারত, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া বেশ কিছু অ্যাপ ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছে।

তিনি বলেন, সংশ্লিষ্টরা পদক্ষেপ না নেওয়ায় প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে আজ রিটটি দায়ের করা হয়েছে।

আইনজীবী রবিন ওই অ্যাপসগুলো বন্ধ করার লক্ষ্যে এর আগে ৮ অক্টোবর লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করেন।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com