আপডেট

x

বাড়িতে বাবার লাশ রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিলো মিরাজ, এসে পড়লেন জানাজা

বৃহস্পতিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ৯:৩৫ অপরাহ্ণ | 47 বার

বাড়িতে বাবার লাশ রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিলো মিরাজ, এসে পড়লেন জানাজা
মামা'র সাথে পরীক্ষার হলের সামনে মিরাজ, ইনসাইটে বৃত্তে তার পিতার ছবি।ছবি: সরাদ

মোতাহার হোসেন খান (৪৫)। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার গ্রীন ভ্যালী স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ছিলেন। বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তার ছেলে মাহিদুল হোসেন খান (মিরাজ) এই বছর মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছেন জেলা শহরের অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। সে ওই বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র। বুধবার যখন উপজেলার দেবগ্রামে নিজ বাড়িতে পরদিনের গণিত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, তখন তার বাবা মৃত্যুবরণ করেন। বাবা’র মৃত্যুতে মনকে কিছুতেই শান্ত করতে পারছে না মিরাজ। সারারাত বাবার মরদেহের পাশে বসে বিভিন্ন দোয়া পড়েছে।


বাবাকে হারিয়ে একদিকে বাকরুদ্ধ শোকে স্তব্ধ মিরাজ। বৃহস্পতিবার সকালে এসএসসি পরীক্ষা দিতে জেলা শহরের আসতে হয়েছে মিরাজকে। কাফনে মোড়ানো বাবার মরদেহ ছুয়ে মামা আরিফুল ইসলামকে সাথে নিয়ে পরীক্ষা দিতে যান মিরাজ। জেলা শহরের গভঃ মডেল গার্লস হাই স্কুলে পরীক্ষার আসন তার। দুপুরে পরীক্ষা শেষে আবার ফিরে এসেছেন বাবার মরদেহের কাছে। বিকেলে বাবার জানাজায় অংশ নিয়েছেন।

webnewsdesign.com

মিরাজ জানায়, বুধবার সকালেও বাবার সাথে তার কথায় হয়। বাবার শেষ কথা ছিল ‘ভালো করে পরীক্ষা দাও, ভয় পেয়ো না’ এখনও তার কথা কানে বাজে।

মিরাজের মামা আরিফুল ইসলাম জানান, মিরাজ ও তার বোন দুজন জেলা শহরে আমাদের বাসায় থেকে পড়াশোনা করেন। আজকে তাকে আমি পরীক্ষা দিতে নিয়ে গিয়েছিলাম। পরীক্ষা শেষে বাড়িতে ফিরে এসে বিকেলে সবাই জানাজায় অংশগ্রহণ করেছি।

মোতাহার হোসেনের আকষ্মিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকাবহ পরিবেশ সৃষ্টি হয়। শিক্ষক, অভিভাবক, ছাত্রছাত্রীসহ সর্বস্তরের মানুষ তাকে শেষ বারের মত দেখতে বাড়িতে ছুটে যায়।

মোতাহার হোসেনের প্রতিবেশি ও তুলাই শিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, মোতাহার হোসেন অনেক কষ্ট করে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছিলেন। তার অকাল মৃত্যুতে শিক্ষাঙ্গণের জন্য বড় ক্ষতি হলো। আল্লাহ যেন তাকে জান্নাতবাসী করেন।


আখাউড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র বাবুল মিয়া বলেন, মোতাহার খুব ভালো মনের মানুষ ছিল। তার মত্যুতে এলাকায় বড় ক্ষতি হলো। দোয়া করি আল্লাহ তাকে জান্নাতবাসী করেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বাদ আসর দেবগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে মিরাজের বাবা মোতাহার হোসেন খানের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশগ্রহণ করেন। এসময় মিরাজ উপস্থিত সবার কাছে তার পিতার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন। জানাজা শেষে মোতাহার হোসেন খানের মরদেহ দাফন করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com