ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ উপনির্বাচন:

নৌকার জয়, ৫০ বছরের দুঃখ ঘুচলো আওয়ামী লীগের

রবিবার, ০৫ নভেম্বর ২০২৩ | ১০:১৪ অপরাহ্ণ |

নৌকার জয়, ৫০ বছরের দুঃখ ঘুচলো আওয়ামী লীগের
Spread the love

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে উপনির্বাচনে ৬৬ হাজার ৩১৪ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে বিজয়ী হয়েছেন নৌকা প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান আলম সাজু। রোববার (৫ নভেম্বর) রাত সোয়া ৯টায় এই ফলাফল ঘোষণা করেন উপনির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক এমপি জিয়াউল হক মৃধা পেয়েছেন ৩৭ হাজার ৫৭৭ ভোট। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলে।

বাকী তিন প্রার্থীর মধ্যে জাতীয়পার্টির প্রার্থী আব্দুল হামিদ লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ১৮৬ ভোট,, জাকের পার্টির জহিরুল ইসলাম জুয়েল গোলাপ ফুল প্রতীকে পেয়েছেন ৫৫১ ভোট এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টির আব্দুর রাজ্জাক আম প্রতীকে ৭৩৯ পেয়েছেন । এছাড়া ত্রুটিপূর্ণ থাকায় ভোট বাতিল হয়েছে ১৩০৮টি।

webnewsdesign.com

বহুল আলোচিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ৫০ বছর পর আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক জয়লাভ করলো। স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেছিলেন বঙ্গবন্ধুর খুনি তাহের উদ্দিন ঠাকুর। এরপর সরাইল-আশুগঞ্জ নিয়ে গঠিত এই আসনে নৌকা প্রতীক নিয়ে কেউ জয়লাভ করতে পারেনি। তাহের উদ্দিন ঠাকুরের পর ১৯৭৯ সালের জাতীয় নির্বাচনে এই আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করে উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঞা। পরবর্তীতে একই বছর জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে বিএনপির প্রার্থী ফরিদুল হুদা ধানের শীষ প্রতীককে জয়লাভ করেন। ১৯৮৬ ও ৮৮ সালে জাতীয়পার্টির প্রার্থী হুমায়ুন কবির লাঙ্গল প্রতীকে জয়লাভ করেন। বিএনপিতে যোগদান করলে ১৯৯১, ৯৬ এর ১৫ ফেব্রুয়ারী ও ৯৬ এর ১২ জুন নির্বাচনে উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঞা জয়লাভ করেন। ২০০১ সালে চার দলীয় জোট থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ফজলুল হক আমিনী জয়লাভ করেন। ২০০৮ ও ২০১৩ সালের নির্বাচনে মহাজোট থেকে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে জাতীয়পার্টির প্রার্থী জিয়াউল হক মৃধা জয়লাভ করেন। ২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচনের বিএনপির প্রার্থী উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঞা জয়লাভ করেন। এরপর তিনি জাতীয় সংসদ ও বিএনপি থেকে পদত্যাগ করলে চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারী উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে কলারছড়ি প্রতীকে উকিল আব্দুস সাত্তার আবারও জয়লাভ করেন। আব্দুস সাত্তার ভূইয়ার মৃত্যুতে আজ রোববার উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহজাহান আলম নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করলেন।

৫০ বছর পর আওয়ামী লীগের কোন প্রার্থী নৌকা প্রতীক নিয়ে জয়লাভ করায় উচ্ছ্বসিত দলীয় নেতাকর্মীরা। বিভিন্ন কেন্দ্রে ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর খণ্ডখণ্ড আনন্দ মিছিল বের করেন তারা।

এই বিষয়ে সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সরাইল উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর বলেন, আমরা নেত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ। দীর্ঘদিন পর এই আসনে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন। নির্বাচনে আমরা জয়লাভ করেছি, এতে দলের সবাই আনন্দিত-উৎফুল্ল। আমরা দীর্ঘদিন পর নৌকা উদ্ধার করতে পেরেছি।

জয়ের পর আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ শাহজাহান আলম সাজু বলেন, আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি বলেছিলাম দীর্ঘদিন আমরা যে বঞ্চনার শিকার হয়েছি, এর থেকে বেড়িয়ে আসতে চেষ্টা করে যাব। আপনারা আমার জন্যে দোয়া করবে সফল যেন হতে পারি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া–২ আসনটি সরাইল ও আশুগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত। এখানে মোট ভোটার ৪ লাখ ১০ হাজার ৭২ জন। এরমধ্যে সরাইল উপজেলায় ২ লাখ ৬৬ হাজার ৬০৫জন ও আশুগঞ্জ উপজেলায় এক ৪৩ হাজার ৪৬৭ জন ভোটার রয়েছেন।

 

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com