দখলদার যুবলীগ নেতারও অভিযোগ আরেক দখলদার আ’লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই ২০২০ | ১১:০৩ পূর্বাহ্ণ | 558 বার

দখলদার যুবলীগ নেতারও অভিযোগ আরেক দখলদার আ’লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার অরুয়াইল বাজার ও তিতাস নদীর পাড়ে অবৈধ দখল, অনিয়মের নেপথ্যের অভিযোগ ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী আবু তালেবের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের সিংহভাগই করেছেন তার নিজ দলের সহযোগী সংগঠন গুলোর নেতৃবৃন্দ। অথচ এই নেতারাও সরকারি জায়গা দখল করে আছেন।


অরুয়াইল ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক বোরহান উদ্দিন। তার বিরুদ্ধে রয়েছে সরকারি অর্থে নির্মিত মহিলা মার্কেটের দোকান, এমনকি শৌচাগার দখলের অভিযোগ। বোরহার উদ্দিন বাজার পরিচালনা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদেও রয়েছে। নিজের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকার পরও বোরহান উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, আবু তালেব দীর্ঘদিন এ বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আছেন। তাছাড়া তিনি এখানে আওয়ামী লীগের সভাপতি। সেই সুবাদে এখানে তার অনিয়ম কর্মকাণ্ড কল্পনাহীন। তার বেপরোয়া চাঁদাবাজিতে এখানে ব্যবসায়ীরা অতিষ্ঠ। সরকারি জায়গা নিয়ে বাণিজ্য করে তিনি বহু টাকার মালিক বনে গেছেন। করোনা পরিস্থিতিতেও তিনি ত্রাণ বিতরণের নামে ব্যবসায়ীদের কাছে চাঁদাবাজি করেছেন। ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনের কাছে এসব বিষয় উল্লেখ করে লিখিত অভিযোগ করেছেন ব্যবসায়ীসহ নানা পেশার মানুষ।

সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা কুতুবউদ্দিন ভূঁইয়া জানান, আওয়ামী লীগ নেতা আবু তালেব বাজার এলাকায় সরকারি জায়গা ও স্থাপনা বিভিন্ন লোকের দখলে দিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। তিনি এখানে কোনো সরকারি জায়গা দখল করেননি বলে দাবি করেন।

অরুয়াইল ইউপি চেয়ারম্যান ও বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া জানান, অরুয়াইল বাজার এলাকায় সকল অবৈধ দখলের নেপথ্যে রয়েছেন হাজী আবু তালেব মিয়া। এই ইউপি চেয়ারম্যান বলেন, এখানকার হাজার হাজার মানুষের দূর্ভোগ দূর করার স্বার্থে বাজার এলাকার সকল সরকারি সম্পত্তি শক্তিশালী ভূমি সিন্ডিকেটের কবল থেকে দখলমুক্ত করতে প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তবে স্থানীয় ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক হাজী আবু তালেবের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। গত সোমবার (৬জুলাই) সন্ধ্যায় অরুয়াইল বাজার এলাকায় নিজ ব্যবসায়িক অফিসে আনুষ্ঠানিক সাংবাদিকদের সাথে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বাজারের আশপাশের সকল সরকারি মূল্যবান জায়গা ও স্থাপনা জনস্বার্থে দখলমুক্ত করার জন্যে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান।

এ ব্যাপারে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ এস এম মোসা জানান, অরুয়াইল বাজার এলাকার সকল সরকারি জায়গা ও সরকারি স্থাপনা অচিরেই বিধি মোতাবেক দখলমুক্ত করা হবে। এজন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। সেখানকার জনদূর্ভোগ লাঘবে সবকিছুই করা হবে।


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com