জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা

দিন

ঘন্টা

মিনিট

সেকেন্ড

থানার ভেতরেই ধরা খেলেন ভুয়া এএসপি সহ ৩জন(ভিডিও)

বুধবার, ১৩ মার্চ ২০১৯ | ৮:১৮ পিএম | 242 বার

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পরিচয়ে প্রতারণা করার সময় কাউসার আলম (৩১) নামের এক প্রতারককে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে তাকে আটক করা হয়। কাউসার আলম সদর উপজেলার মজলিসপুর ইউনিয়নের হাজি বাদশাহ আলমের ছেলে।

এ সময় তার দুই সহযোগীকে আটক করা হয়। তারা হলেন—সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের দারমা গ্রামের আব্দুল খালেকের দুই ছেলে ফায়েজ (৩৫) ও কাউসার(২৫)।
থানা সূত্রে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার একটি চুরির মামলা অভিযোগ দিতে আসেন কাউসার আলমসহ দুজন। এ সময় কাউসার নিজেকে ঢাকার মালিবাগ জোনের ডিএসবির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার পরিচয় দেন। পরে আজ বুধবার দুপুরে আবার তিনি সদর মডেল থানায় আসেন। এসে ওসি না থাকার পরেও তার কক্ষে ডুকে ওসির চেয়ারে বসে যান।

থানার কর্মকর্তাদের বিভিন্ন অর্ডার দিতে থাকেন। এক কর্মকর্তার অনুরোধে ওসির চেয়ার থেকে উঠে সামনের চেয়ারে বসেন। একপর্যায়ে তাকে চায়ের কথা বলা হলে জানান, চা পান করেন না তিনি, কফি পান করবেন। এর ভেতরে ওসি সেলিম উদ্দিন থানায় আসেন। তার ব্যবহারে সেলিম উদ্দিনের সন্দেহ হলে যাচাই-বাছাই করে জানতে পারেন, কাউসার আলম ভুয়া সিনিয়র এএসপি। পরে কাউসারসহ তার সাথে থাকা দুজনকে আটক করা হয়।

আটক ভুয়া সিনিয়র এএসপি কাউসার আলম জানান, তিনি ঢাকার বেইলি রোডে অফিসার্স ক্লাবে সার্ভিস বয়ের কাজ করে গত ১০ বছর ধরে। কয়েক বছর আগে বঙ্গভবনের একটি অনুষ্ঠানে যাওয়ার পাস কার্ড পায়। সে সময় থেকে তার ওই কার্ডটি বিভিন্ন জায়গায় প্রতারণা কাজে ব্যবহার করেন। গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে রাজধানীর নীলক্ষেত থেকে পুলিশে আইডি কার্ড তৈরি করেন। এই আইডি কার্ড নিয়ে এসেছেন সদর থানায়।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম উদ্দিন জানান, প্রতারণার দায়ে তাদের বিরুদ্ধের আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com