জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে আড়াইসিধা বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার

শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১:০৪ অপরাহ্ণ | 148 বার

জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে আড়াইসিধা বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার

ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের আড়াইসিধায় উদ্বোধন করা হল শহীদ মিনার। শুক্রবার সকালে জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার আড়াইসিধা কেবি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নবনির্মিত শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে এর উদ্বোধন করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন।

আড়াইসিধা কেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাঙ্গনে শহীদ মিনার না থাকায় প্রতি বছরই শিক্ষার্থীরা শহীদ দিবস ও আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবসে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতেন কাগজের শহীদ মিনার তৈরী করে। বিষয়টি অবহিত হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান উদ্যোগী হয়ে আড়াইসিধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম মিয়া মাধ্যমে বিদ্যালয় মাঠে ভাষা শহীদদের স্বরণে একটি শহীদ মিনার স্থাপনের উদ্যোগ নেন।


নবনির্মিত দৃষ্টি নন্দিত এ শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে প্রত্যুষে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে উপস্থিত হয়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে খালি পায়ে প্রভাত ফেরিতে অংশ নেন এবং শহীদ বেদীতে পুস্পস্তবক অর্পন করেন জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খাঁন। এ সময় শহীদ মিনারটির উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করা হয় এবং ভাষা শহীদদের আত্বার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন আশুগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফিরোজা পারভিন, আড়াইসিধা কেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. সেলিম মিয়া, আড়াইসিধা কেবি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল আলম, খন্দকার সাহানা ফরিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহুরুল ইসলাম প্রমূখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সংক্ষিপ্ত বক্তেব্যে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান তার বক্তব্যে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ভাষার মান রক্ষা করা প্রতিটি নাগরিকের কর্তব্য। যে উদ্দেশ্য নিয়ে বুকের তাজা রক্ত মাটিতে ঢেলে দিয়ে এই ভাষা আমরা পেয়েছি তার যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। ভাষাকে অবমূল্যায়ন করা যাবে না। পাশাপাশি ত্রিশ লক্ষ্য শহীদের আত্বত্যাগের মাধ্যমে আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র পেয়েছি। তাই দেশের প্রতিও আমাদের শ্রদ্ধাবোধ থাকতে হবে। আমরা যেন ভাষা শহীদ ও মুক্তিযোদ্ধাদের ভূলে না যাই।

এ ছাড়া ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পর্যায়ক্রমে জেলার সবগুলো উচ্চ বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার স্থাপনের উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

রাফি/-

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com