আপডেট

x

গোপনে তিন কাজ বন্টন, ঠিকাদারদের তোপেরমুখে বাতিল করলো প্রকৌশলী

সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১ | ৯:১৩ পূর্বাহ্ণ | 120 বার

গোপনে তিন কাজ বন্টন, ঠিকাদারদের তোপেরমুখে বাতিল করলো প্রকৌশলী

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে (এলজিইডি) নির্দিষ্ট সময়ের আগে কিছু কাজ লটারির মাধ্যমে পছন্দের লোকজনকে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে ঠিকাদারদের তুমুল বাকবিতণ্ডা হয়েছে। পরে ঠিকাদারদের তোপের মুখে ওই কাজ গুলো পুনরায় লটারি করার আদেশ দিতে বাধ্য হন নির্বাহী প্রকৌশলী। রোববার সন্ধ্যায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের কার্যালয়ে এই ঘটনায় ঘটে।


দরপত্রে অংশ নেওয়া ঠিকাদারগণ জানান, গত সেপ্টেম্বর মাসে জেলার বিভিন্ন উপজেলার ৩৬টি সড়ক মেরামত কাজের দরপত্র আহবান করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরে (এলজিইডি)। ৩০ সেপ্টেম্বর শেষ দিন পর্যন্ত প্রায় আড়াই শতাধিক ঠিকাদার দরপত্র অংশ নিতে কাগজ জমা দেন। এরপর গত ১৪ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তের কার্যালয়ে এক নোটিশে ১৭ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৪টায় ৩৬টি কাজের লটারির অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানানো হয়। আজ ১৭ অক্টোবর রোববার বিকেল সাড়ে ৪টায় ৩৬টি কাজের লটারি হওয়ার আগেই দুপুরে প্রায় ৪কোটি টাকার ৩টি কাজ তিনজন ঠিকাদারকে দিতে গোপনে লটারি করে বন্টন করে দেওয়া হয়। বিষয়টি অন্যান্য ঠিকাদাররা অবগত হলে, তাদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করে।

webnewsdesign.com

বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এলজিইডি অফিসের সভা কক্ষে দরপত্রের লটারির শুরু হওয়ার প্রাক্কালে উপস্থিত ঠিকাদাররা আপত্তি তোলেন নির্দিষ্ট সময়ের আগে বন্টন করে দেওয়া কাজের বিষয়ে। তাদের দাবি সময়ের আগে যে ৩টি কাজ বন্টন করে দেওয়া হয়েছে, সেগুলোর বাতিল করে পুনরায় লটারি করতে হবে। এনিয়ে তুমুল প্রতিবাদ করে ঠিকাদাররা। এছাড়াও তারা অভিযোগ করেন, অফিসের পে-অর্ডার ফেরত নিতে অপারেটর তারিকুল ইসলামকে ঘুষ দিতে হয়, নাহলে সে পে-অর্ডার আটকে রাখে। পরে লটারি শুরুর আগে ঠিকাদারদের দাবির মুখে বন্টন করে দেওয়া ৩টি কাজের দরপত্র পুনরায় লটারি করার লিখিত আদেশ দেন নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শিরাজুল ইসলাম।

দরপত্রে অংশ নেওয়া ঠিকাদার রকিব, পারভেজ ও সুমন বলেন, রোববার বিকেল সাড়ে ৪টায় ৩৬টি কাজের লটারির পূর্বনির্ধারিত সময় ছিল। কিন্তু এরই মধ্যে ৩টি কাজের লটারি সকালেই করে ফেলে তাদের পছন্দের ঠিকাদারদের পাইয়ে দেওয়ার জন্য। এতে অন্যান্য সকল ঠিকাদারদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করে। তারা প্রতিবাদ জানালে, নির্বাহী প্রকৌশলী ওই ৩টি কাজের পুনরায় লটারি করার আদেশ দেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আজ অনুষ্ঠিত হওয়া দরপত্রের তিন কাজের জটিলতা দেখা দেওয়া এগুলো পুনরায় লটারি করা হবে’।


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com