আপডেট

x

কসবায় ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে আবার ধর্ষণ

শনিবার, ০৬ আগস্ট ২০২২ | ৯:৩২ অপরাহ্ণ | 79 বার

কসবায় ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে আবার ধর্ষণ
গ্রেফতারকৃত বাদশা মিয়া।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে ফের ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় থানায় দায়ের হওয়ার মামলায় অভিযুক্ত দুইজনের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।


থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুটি এলাকার এক তরুণীকে বেশ কিছুদিন আগে ধর্ষণ করে বাদশা মিয়া ও আলমগীর মিয়া নামে দুই ব্যক্তি। সম্প্রতি প্রবাসীর কাছে বিয়ে হওয়া ওই তরুণী এখন অন্তসত্বা। বুধবার দুপুরে প্রবাসীর ওই স্ত্রী তার বান্ধবীর বাড়িতে যাওয়ার সময় সিএনজিতে তুলে নিয়ে যায় বাদশা মিয়া ও আলমগীর মিয়া। পরে সিএনজিতে উঠিয়ে কুটি-চৌমুহনীতে অবস্থিত একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ ও শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। পরে তাকে আবাসিক হোটেলে ফেলে ধর্ষকরা পালিয়ে যায়।

webnewsdesign.com

এই ঘটনার পর অভিযুক্ত উপজেলার কুটি ইউনিয়নের লেশিয়ারা গ্রামের মৃত কুদ্দুস মিয়ার ছেলে বাদশা মিয়া (৩২) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে অপর অভিযুক্ত মৃত জাহের মিয়ার ছেলে আলমগীর মিয়া (২৮) পলাতক রয়েছে।

এদিকে, এ ঘটনায় ভুক্তভোগী প্রবাসীর স্ত্রী নিজেই বাদী হয়ে বাদশা মিয়া ও আলমগীর মিয়াকে অভিযুক্ত করে গত ৪ আগস্ট বৃহস্পতিবার কসবা থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ শুক্রবার বাদশা মিয়াকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

কসবা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মহিউদ্দিন জানান, এই ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত না করে কিভাবে কি হয়েছে সেটা বলা যাচ্ছে না। মামলায় অভিযুক্ত অপর আসামীকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তাছাড়াও সেই আবাসিক হোটেলেও অভিযান চালানো হয়েছে। সেখানে কাউকেই পাওয়া যায়নি। হোটেলের রেজিষ্টার জব্দ করা হয়েছে।

 


 

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com