আপডেট

x

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জুনে এসএসসি ও জুলাই-আগস্টে এইচএসসি

মঙ্গলবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২০ | ৭:১০ অপরাহ্ণ | 84 বার

করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে জুনে এসএসসি ও জুলাই-আগস্টে এইচএসসি

মহামারী করোনাভাইরাস সংক্রমণের পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে ২০২১ সালের জুনে এসএসসি এবং জুলাই-আগস্ট নাগাদ এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা নেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।


মঙ্গলবার এক ভার্চ্যুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, সংক্ষিপ্ত সিলেবাস তৈরি করা হচ্ছে। সেই সিলেবাস অনুযায়ী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

webnewsdesign.com

দীপু মনি বলেন, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফেব্রুয়ারিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আনা যায় কি না তা নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে।

বই বিতরণের উৎস ১২ দিন

তিনি বলেন, নতুন বছরের প্রথম দিন বই উৎসবের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শিক্ষার্থীদের সমাবেশ না করে উদ্বোধনের পর ১২ দিন বিভিন্ন শ্রেণিতে বই বিতরণ করা হবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বছরের প্রথম দিন সারা দেশে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বই উৎসবে অংশ নেয়। এটি একটি বড় উৎসবে পরিণত হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকি ও নিরাপত্তার কথা ভেবে এবার একই দিনে সব শিক্ষার্থীর হাতে বই তুলে দেব না। কারণ জনসমাবেশ কিছুতেই আমরা করতে পারি না।


দীপু মনি বলেন, প্রতিটি শ্রেণির বই বিতরণের জন্য আমরা তিন দিন করে সময় দিতে চাইছি। অর্থাৎ ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত মোট ১২ দিনে আমরা বই বিতরণ করব। একেকটি ক্লাসের শিক্ষার্থীরা তিন দিন আসবে।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে বলে দেবে এত থেকে এত পর্যন্ত তোমরা এসো। সে রকম একটি ব্যবস্থা করে একই ক্লাসের শিক্ষার্থীরা তিন দিনে ভাগে ভাগে এসে বইগুলো নিয়ে যাবে, বলেন তিনি।

এ সময় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, ৩১ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী বই উৎসব উদ্বোধন করবেন। ১ জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিতে প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। বই বিতরণে শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমি সবাইকে আহ্বান জানাই।

এবার প্রাথমিক স্তরে প্রায় তিন কোটি বই বিতরণ করা হবে বলে তিনি জানান।

জানুয়ারিতে অধ্যাদেশ, এরপরই এইচএসসির ফল প্রকাশ

শিক্ষামন্ত্রী জানান, এ জন্য জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে অধ্যাদেশ জারি করা হবে। আর অধ্যাদশ জারির পর এইচএসসি ফল প্রকাশ করা হবে।

তিনি বলেন, আনুষ্ঠানিকভাবে পরীক্ষা না নিয়ে এইচএসসির ফল প্রকাশ করতে আইনি প্রক্রিয়া হিসেবে অধ্যাদেশ জারি করতে হবে।

পরীক্ষার ফল বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জেএসসি ও এসএসসির বিষয়ের সঙ্গে সমন্বয় করে এইচএসসির ফল প্রকাশ করা হবে। কোন কোন বিষয় সমন্বয় করা হবে সে ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা মতামত দিয়েছেন। ফলাফলে যদি কোনো শিক্ষার্থী সংক্ষুব্ধ হন তাহলে তারা বোর্ডে আবেদন করতে পারবেন। আমি আশা করি সংক্ষুব্ধ হওয়ার মতো ঘটনা ঘটবে না।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফলকে প্রাধান্য দিয়ে এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল দেয়া হবে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, জেএসসির ফলাফলকে ২৫ এবং এসএসসির ফলকে ৭৫ শতাংশ বিবেচনায় নিয়ে ফল ঘোষিত হবে।

গত ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও করো

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com