করোনার অবসর সময়ে শিক্ষিকা থেকে উদ্যোক্তা হলেন তিতি

শনিবার, ২২ আগস্ট ২০২০ | ৪:৫৮ অপরাহ্ণ | 385 বার

করোনার অবসর সময়ে শিক্ষিকা থেকে উদ্যোক্তা হলেন তিতি

নাঈমা ফেরদৌস করিম তিতি। একজন নারী উদ্যোক্তা। একটি বেসরকারি হাইস্কুলে শিক্ষকতার পাশাপাশি অনলাইন, অফলাইনে বিক্রি করে চলেছেন গাছ, পট, মাটি ও জৈব সার। ইংরেজি সাহিত্যে এমএ পাশ করে শিক্ষক, গৃহিনীর পাশাপাশি এখন পুরোদস্তুর ব্যবসায়ী এই নারী। মিমোজা প্ল্যান্টস নামের তার ফেসবুক পেইজটি এখন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। পেইজের ভিজিট করতে পারেন নিচের লিংকেঃ https://www.facebook.com/mimosaplants/


তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করে নিয়মিত গাছগাছালি বিষয়ক শিক্ষা নিচ্ছেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের কাউতলিস্থ ভাড়া বাসার দুটো বারান্দা ও ছাদ তার গাছ পালনের মূল কেন্দ্র। তবে গোবর আর উৎকৃষ্ট মাটি সংগ্রহ করে আনেন তার শ্বশুরবাড়ি বিজেশ্বর গ্রাম থেকে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে অনলাইনে অর্ডার করে কুরিয়ারের মাধ্যমে নিয়ে আসেন বিভিন্ন গাছ গাছালি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের দাতিয়ারায় তিনি যে বাড়িতে জন্ম গ্রহণ করেছেন, সেখানে গাছগাছালিতে ভরপুর ছিলো। ছোটবেলা থেকেই ছিলেন সবুজের সংস্পর্শে। সেখান থেকেই তার প্রকৃতির সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা। শহরের দাতিয়ারার মেহের মঞ্জিলেও তার গড়ে তোলা বিশাল আঙ্গিনা বাগান ও ছাদবাগান দর্শনীয় স্থানে পরিণত হয়েছে বাগানপ্রেমিদের জন্য।

কথা হয় তিতি’র সঙ্গে। তিনি বলেন- আমার স্বামী আমাকে আর্থিক ও মানসিক সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছেন। আমার মিমোজা প্ল্যান্টস ফেসবুক পেজের লোগোটিও তার তৈরি করা। এমনকি পেজ, গ্রুপও সে খুলে দিয়েছে। ও চায় আমি ব্যবসা করি। মূলত বিগত লকডাউনের অবসর সময়টি কাজে লাগানোর পরিকল্পনা ছিলো। বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি। ভবিষ্যতে গাছ, মাটি, সার ও টব বিক্রির স্থায়ী একটি দোকান দিতে চাই শহরে৷


মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com