আপডেট

x

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ

রবিবার, ৩১ মে ২০২০ | ১২:২০ অপরাহ্ণ | 100 বার

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফল ঘোষণা করেন। এবার পরীক্ষায় পাসের হার ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ।


বেলা ১১টার দিকে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার বিস্তারিত ফলাফল ফেসবুক লাইভে তুলে ধরেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর দেশের সকল শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটগুলোতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

প্রকাশিত ফলাফল অনুযায়ী, ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৮২.৩৪ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৬ হাজার ৪৭ জন। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮৪.৭৫ শতাংশ শিক্ষার্থী। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৯ হাজার আট জন। যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭.৩১ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৪ জন। এছাড়া ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০.১৩ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে সাত হাজার ৪৩৪ জন।

সিলেট শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৮.৭৯ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে চার হাজার ২৬৩ জন। কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮৫.২২ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২৪৫ জন। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৮২.৭৩ শতাংশ। এ বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। আর রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে পাস করেছে ৯০.৩৭ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ হাজার ১৬৭ জন।

বরিশাল বোর্ডে পাসের হার ৭৯.৭০ শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছে চার হাজার ৪৮৩ জন। মাদ্রাসা বোর্ডে ৮২.৫৫ শতাংশ পাস করেছে। আর কারিগরিতে পাস করেছে ৭২.৭০ শতাংশ।


এবারই প্রথম ভার্চুয়াল মাধ্যমে ফল জানানো হচ্ছে। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানানো হবে না। এবার কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই ফল পাঠানো হবে না। আর ইতোমধ্যে যেসব শিক্ষার্থী মোবাইলে ফলাফল পেতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের নির্ধারিত নম্বরে জিপিএ গ্রেডসহ ফলাফল পাঠানো হবে।

এছাড়া আগের মতো অনলাইনে বা ওয়েবসাইট ও টেলিটকে এসএমএস করে ফল জানার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত এই বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ৩ ফেব্রুয়ারি। তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হয় ৫ মার্চ। এবার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন। এসএসসিতে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ লাখ ২২ হাজার ১৬৮ জন। এরমধ্যে অংশ নিয়েছে ১৪ লাখ ১৬ হাজার ৭২১ জন।

করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে নির্ধারিত সময়ে (পরীক্ষার পর ৬০ দিন) ফল প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com