আপডেট

x

আখাউড়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন, ৫জনের এক বছরের সাজা

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১ | ৭:৪১ অপরাহ্ণ | 61 বার

আখাউড়ায় হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন, ৫জনের এক বছরের সাজা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় দেলোয়ার হোসেন দিলু হত্যা মামলায় রায় প্রদান করেছে আদালত। মঙ্গলবার বেলা পৌনে ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া অতিরিক্ত দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক মো. আবু উবায়দা এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।দীর্ঘ ১৪বছর পর এই হত্যা মামলায় রায় প্রদান করা হলো।


মামলার প্রধান আসামী বাবুল মিয়াকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬মাসের কারাদণ্ড প্রদান করেছে আদালত। এছাড়া আদালতের রায়ের আরও ৫জনকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করে আদালত।

webnewsdesign.com

এক বছরের কারাদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন, দুলাল মিয়া, সৈয়দ খা, হাসান মিয়া, হানু মিয়া ও মোহাম্মদ আলী। বাকী ৪৬জন আসামীকে বেকসুর খালাশ প্রদান করে আদালত।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৭সালের ফেব্রুয়ারিতে আখাউড়া উপজেলার বনগজ গ্রামে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দেলোয়ার হোসেন দিলুকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষের লোকজন। নিহত দেলোয়ার হোসেন দিলু ওই এলাকার বিলাল হোসেনের ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে পূর্ব বিরোধের জেরে স্থানীয় একটি স্কুল মাঠে প্রতিপক্ষের লোকজন দা দিয়ে কুপিয়ে দেলোয়ার হোসেন দিলু’কে রক্তাক্ত করেন। আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে আখাউড়া উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে দিলুকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। পরে শারীরিক অবস্থা অবনতি হলে রাজধানীতে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনার একদিন পর ১৫ ফেব্রুয়ারী ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দিলু মৃত্যুবরণ করেন।

এই ঘটনায় ১৭ ফেব্রুয়ারী দেলোয়ার হোসেন দিলু’র চাচা মনির মিয়া বাদি হয়ে আখাউড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় একই এলাকার বাবুল মিয়াকে প্রধান করে ৫৩জনকে আসামী করা হয়।
মামলার তদন্ত শেষে ২০০৭সালের ১৭জুলাই আদালতে চার্টশিট প্রদান করে পুলিশ। এরই মাঝে এক আসামী মারা যান। এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষ বাদিসহ ১৯জনের সাক্ষী প্রদান করে এবং বিবাদি পক্ষ ৯জনের সাফাই সাক্ষী প্রদান করেন। দীর্ঘ যুক্তিতর্ক শেষে এই হত্যা মামলার রায় আদালত প্রদান করেন।


মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মুজিবুর রহমান ভূইয়া বলেন, আমরা প্রত্যাশা করেছিলাম সকল আসামীর সাজা হবে। খালাশ পাওয়া আসামীদের বিরুদ্ধে আমরা উচ্চ আদালতে যাব।

বিবাদী পক্ষের আইনজীবী জসিম উদ্দিন খাঁ এই রায়ের আদেশে অসন্তোষ প্রকাশ করে জানান, আমরা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাব।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com