রোববার উদ্বোধন হচ্ছে ‘ওয়াই সেতু

শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৯:৪৫ অপরাহ্ণ | 366 বার

রোববার উদ্বোধন হচ্ছে ‘ওয়াই সেতু

এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব রূপ নিচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও কুমিল্লার তিন উপজেলার লক্ষাধিক মানুষের স্বপ্নের সেতু শেখ হাসিনা-তিতাস সেতু। বাংলাদেশে প্রথম এই ‘ওয়াই’ আকৃতির সেতু নির্মাণের ফলে বদলে যাবে কুমিল্লার মুরাদনগর, হোমনা এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার লক্ষাধিক মানুষের জীবন ও জীবিকা। আগামীকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ¯^প্নের এই ওয়াই সেতুর উদ্বোধন করবেন।
তিতাস নদীর ত্রি-মোহনার দুই অংশে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার সলিমাবাদ ও ফরদাবাদ এবং কুমিল্লার হোমনা এবং মুরাদনগর উপজেলাকে সংযুক্ত করেছে এই সেতু।
স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত¡াবধানে ২০১১ সালের ১৬ জুন সেতুটির নির্মাণকাজ শুরু হয়ে কিছুদিন পূর্বে কাজ শেষ হয়। এই সেতুর দৈর্ঘ্য ৭৭১ দশমিক ২০ মিটার এবং প্রস্থ ৮ দশমিক ১০ মিটার। সেতু নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় একশ কোটি টাকা ।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী ফজলে হাবিব জানান, সেতুটি নির্মাণের ফলে কুমিল্লা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দ¶িণাঞ্চলের মানুষ স্বল্পসময়ে ঢাকায় যাতায়াত করতে পারবেন। শুধু তাই নয়, এটি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের বিকল্প পথ হিসেবেও ব্যবহার করা যাবে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান জানান, এ ছাড়াও বাঞ্ছারামপুরের সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের ১২ কিলোমিটার দূরত্ব কমাবে। সেতুটি এলাকার যোগাযোগ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com