মৃত ব্যক্তি জীবিত উদ্ধার!

শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৮:৫৯ অপরাহ্ণ | 2758 বার

মৃত ব্যক্তি জীবিত উদ্ধার!

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় মো. আসাদুল্লাহ (৩৮) নামে মৃত এক ব্যক্তিকে জীবিত উদ্ধার করেছে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ। শুক্রবার ভোরে তাকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থেকে উদ্ধারের পর বিষয়টি নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। আসাদ ওই উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নের অরুয়াইল গ্রামের আলী আকবরের ছেলে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, অরুয়াইল গ্রামে একটি জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আসাদুল্লার সাথে একই ইউনিয়নের ধামাউরা গ্রামের আক্তার হোসেনের ছেলে সফিক মিয়াসহ স্থানীয় কয়েকজনের সাথে বিরোধ চলে আসছিল। এ নিয়ে সফিক ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে আদালতে একটি মামলাও করেছিল আসাদুল্লাহ। এ নিয়ে গত ৫ আগস্ট সফিকের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন আসাদুল্লাহ। এরপর ৯ আগস্ট ‘নিখোঁজ’ হন আসাদুল্লাহ। সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজা-খুঁজি করেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে গত ৬ সেপ্টে¤^র সরাইল উপজেলার চুন্টা গ্রামের একটি বিল থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ‘নিখোঁজ’ আসাদুল্লার শারীরিক গঠনের সাথে উদ্ধার হওয়া মরদেহের মিল থাকায় তার পরিবারের লোকজন আসাদুল্লাহর মৃতদেহ বলে শনাক্ত করে ওই মরদেহটি দাফন করা হয়। এ ঘটনার পরদিন ৭ সেপ্টে¤^র আসাদুল্লার মেয়ে মোমেনা বেগম বাদী হয়ে সফিক মিয়াকে প্রধান আসামি করে সাতজনের বিরুদ্ধে সরাইল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
এ ব্যাপারে সরাইল থানার ওসি মো:মফিজ উদ্দিন বলেন, উদ্ধার হওয়া মরদেহ দেখে আসাদুল্লার পরিবার শনাক্ত করে যে এটি তারই মরদেহ। তারপরও মরদেহের ডিএনএ পরীক্ষার জন্য নমুনা সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। তিনি আরও জানান আসাদুল্লাহকে সোনারগাঁও পুলিশ উদ্বার করে আজ শনিবার সন্ধ্যায় সরাইল থানায় নিয়ে আসে। শনিবার জবানবন্দি গ্রহণের জন্য তাকে আদালতে হাজির করা হবে। জবানবন্দি গ্রহণের পর পুরো ঘটনা  জানা যাবে।উদ্বার হওয়া আসাদুল্লাহর বরাত দিয়ে ওসি আরো জানান তাকে কে-বা কারা অপহরণ করে ৫দিন পর নারায়নগঞ্জের সোনারগায়ে ফেলে আসা হয়।

মন্তব্য করুন

Development by: webnewsdesign.com